রেডিয়েটর কি? রেডিয়েটর কত প্রকার? রেডিয়েটর কিভাবে কাজ করে?

types of radiator


রেডিয়েটর কি? 

রেডিয়েটর এক ধরনের হিট এক্সচেঞ্জার। এতে কুলিং সারফেসের ক্ষেত্রফল বাড়ানোর মাধ্যমে খুব সহজেই হিট ট্রান্সফার সম্পন্ন করা হয়। হিটিং এবং কুলিং উভয় কাজেই রেডিয়েটর ব্যাবহার করা হয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই রেডিয়েটর কনভেকশন ও রেডিয়েশনের পদ্ধতিতে হিট ট্রান্সফার করে। বিভিন্ন ধরনের ইঞ্জিনে (যেমনঃ গাড়ি, মোটরসাইকেল, উড়োজাহাজ, ট্রেন, পাওয়ার প্ল্যান্ট) কুলিং এর জন্য রেডিয়েটর ব্যাবহার করা হয়।

রেডিয়েটর কিভাবে কাজ করে?

video source
রেডিয়েটরের কনস্ট্রাকশন ও কার্যপদ্ধতি বেশ সিম্পল। রেডিয়েটরে সাধারণত অ্যালুমিনিয়ামের ফিন থাকে। কারণ, অ্যালুমিনিয়ামের থার্মাল কন্ডাক্টিভিটি অনেক বেশি। এর মধ্যে দিয়ে কুলেন্ট ফ্লো করানোর জন্য টিউব থাকে। টিউব সিস্টেম এবং ফিনের উপর ১টি আপার ট্যাঙ্ক ও নিচে ১টি লোয়ার ট্যাঙ্ক থাকে। আপার ট্যাঙ্ক থেকে গরম (বা ঠান্ডা) কুলেন্ট টিউব সিস্টেম প্রবেশ করে, টিউবের ভিতর দিয়ে ফ্লো করে এবং আপার ট্যাঙ্কে ঠান্ডা (বা গরম) কুলেন্ট জমা হয়। কুলেন্টকে ঠান্ডা বা গরম করার জন্য রেডিয়েটরের ফিনের উপর দিয়ে ফ্যানের সাহায্যে বাতাস ফ্লো করানো হয়।

অর্থাৎ ইঞ্জিন বা অন্য মেশিন থেকে তাপ ওয়ার্কিং কুলেন্ট কে গরম করে। সেই গরম কুলেন্ট রেডিয়েটরের টিউবের ভিতর দিয়ে ফ্লো করে। টিউবের সাথে লেগে থাকা অ্যালুমিনিয়াম ফিনে তাপ প্রবাহিত হয়। ফিনের উপর দিয়ে বাতাস প্রবাহিত করায়, তাপ ফিন থেকে বাতাসে চলে যায়। ফলে, লোয়ার ট্যাঙ্কে ঠান্ডা কুলেন্ট জমা হয় এবং তা পুনরায় সিস্টেমকে ঠাণ্ডা করতে ব্যাবহার করা হয়।

রেডিয়েটর কত প্রকার? রেডিয়েটর কি

রেডিয়েটর মূলত ২প্রকার

১. টিউবুলার রেডিয়েটরঃ এই ধরনের রেডিয়েটরে আপার ও লোয়ার ট্যাঙ্কের মাঝখানে থাকা টিউব দিয়ে কুলেন্ট ফ্লো করে। টিউবের সাথে ফিন কনট্যাক্ট এ থাকে এবং ফিনের উপর দিয়ে বাতাস প্রবাহিত হওয়ার মাধ্যমে হিট ট্রান্সফার হয়। এই ধরনের রেডিয়েটরের ১টি বড় অসুবিধা হল কোন টিউব যদি জ্যাম হয়ে যায়, তাহলে সেই টিউবের মাধ্যমে কুলিং সম্পূর্ণ বন্ধ থাকে। ফলে, রেডিয়েটরের পারফরম্যান্স ব্যাপক ইফেক্টেড হয়।

২. সেলুলার রেডিয়েটরঃ এই ধরনের রেডিয়েটরে টিউবের ভিতর দিয়ে বাতাস প্রবাহিত হয় এবং টিউবের চারপাশ দিয়ে কুলেন্ট প্রবাহিত হয়। সেলুলার রেডিয়েটরে কোন টিউব জ্যাম হয়ে গেলেও রেডিয়েটরের পারফরম্যান্স তেমন প্রভাবিত হয় না।

কুলেন্টের ফ্লোয়ের ডিরেকশনের উপর ভিত্তি করে রেডিয়েটর আবার ২প্রকার,

১. ডাউনফ্লো রেডিয়েটরঃ এই ধরনের রেডিয়েটরে ট্যাঙ্ক ২টি, কোরের উপরে ও নিচে থাকে। এদের টিউবগুলো ভারটিক্যাল ভাবে থাকে। ডাউনফ্লো রেডিয়েটর লম্বায় বড় হয়, কিন্তু চওড়ায় ক্রসফ্লো রেডিয়েটরের তুলনায় ছোট হয়।

২. ক্রসফ্লো রেডিয়েটরঃ এই ধরনের রেডিয়েটরে ট্যাঙ্ক ২টি, কোরের দুইপাশে থাকে। এদের টিউবগুলো হরাইযন্টাল ভাবে থাকে। ক্রসফ্লো রেডিয়েটর লম্বায় ছোট হয়, কিন্তু চওড়ায় ডাউনফ্লো রেডিয়েটরের তুলনায় বড় হয়।

কোন রেডিয়েটর সিস্টেম বেটার কাজ করবে তা নির্ভর করে অ্যাভেইলঅ্যাবল জায়গার উপর। যেমনঃ ট্রাক এর সামনে ভারটিক্যাল জায়গা অনেক, তাই সেখানে ডাউনফ্লো রেডিয়েটর ব্যবহার করা যাবে। অন্যদিকে ছোট গাড়ির সামনে ভারটিক্যাল জায়গা কম থাকায় সেখানে ব্যবহারের জন্য ক্রসফ্লো রেডিয়েটর অধিক উপযুক্ত।

কুলেন্ট ফিনের সাথে কনট্যাক্ট এ থাকা টিউবের ভিতর দিয়ে কয়বার প্রবাহিত হবে তার উপর ভিত্তি করে সিঙ্গেল ও মাল্টিপল পাস রেডিয়েটর হয়ে থাকে। সিঙ্গেল পাস রেডিয়েটরে কুলেন্ট ১বার এবং ডাবল ও ত্রিপল পাস রেডিয়েটরে কুলেন্ট যথাক্রমে ২ ও ৩ বার ফিন সার্ফেসের সাথে হিট ট্রান্সফারের সুযোগ পায়। অর্থাৎ, মাল্টিপল পাস রেডিয়েটরে বেশি কুলিং টাইম থাকে এবং তার ফলে তাপমাত্রা অধিক কমানো সম্ভব।

কিভাবে রেডিয়েটরের পারফরম্যান্স বৃদ্ধি করা যায়?

রেডিয়েটরের পারফরম্যান্স বিভিন্নভাবে বৃদ্ধি করা যায়। যেমনঃ

১. ডাউনফ্লো রেডিয়েটরের দৈর্ঘ্য এবং ক্রসফ্লো রেডিয়েটরের প্রস্থ বৃদ্ধি করলে কুলিং ক্যাপাসিটি বৃদ্ধি পায়। তাছাড়া, রেডিয়েটরের পুরুত যত কম রাখা যায়, কুলিং তত ভাল হয়।

২. ফিন ডেনসিটি যত বেশি হয়, রেডিয়েটরের কুলিং তত ভাল হয়। তবে ফিন ডেনসিটি ১টা অপ্টিমাম লেভেল এ রাখা প্রয়োজন। কেননা, ফিনের মধ্যবর্তী জায়গা খুব কম হলে (অর্থাৎ ফিন ডেনসিটি খুব বেশি হলে) বাতাসের প্রবাহের জন্য অধিক শক্তিশালী ফ্যান প্রয়োজন এবং সেখানে ময়লা জমে রেডিয়েটরে জ্যাম হওয়ার সম্ভাবনাও বাড়তে থাকে।

৩. মাল্টিপল পাস ব্যাবহার করে। এতে করে কুলেন্ত কয়েকবার (পাসের সংখ্যার উপর ভিত্তি করে) ফিনের সাথে হিট ট্রান্সফার এর মাধ্যমে অধিক ঠাণ্ডা হতে পারে।

৪. ফ্যান স্পীড বেশি হলে ফিনের উপর দিয়ে বাতাসের প্রবাহ বেশি হয়, ফলে কুলিংও বেশি হয়। রেডিয়েটরে এক বা একাধিক ফ্যান ব্যাবহার করা যেতে পারে। আবার, ফ্যান এর অবস্থানের উপরও রেডিয়েটরের এফিশিয়েন্সি নির্ভর করে। ফ্যান রেডিয়েটরের সামনে থাকলে (এয়ার পুলিং ডিজাইন) এফিশিয়েন্সি ২০% পর্যন্ত বেশি হয়।

৫. এছাড়াও ম্যাটারিয়াল, কুলেন্ট ফ্লো রেট, টেম্পারেচার ডিফারেন্সিয়াল পরিবর্তন করে রেডিয়েটরের পারফরম্যান্স বৃদ্ধি করা যায়।

Join our Facebook group

Types of radiator

0/Post a Comment/Comments

Previous Post Next Post