শিডিউল মেইনটেন্যন্স এবং ট্রাবলশুটিং । Schedule maintenance and troubleshooting

 

Image link website link

প্রিভেন্টিভ মেইনটেন্যন্স (Preventive maintenance):

প্রিভেন্টিভ মেইনটেন্যন্স হচ্ছে রেগুলার এবং রুটিন মেইন্টেন্যন্স যা মেশিনকে হঠাৎ ফেইলারের হাত থেকে বাচায়।  অর্থাৎ এটি একটি শিডিউল মেইন্টেন্যন্স যা ইকুইপমেন্ট বা মেশিনের দক্ষতা বৃদ্ধি করে, যন্ত্রপাতির লাইফটাইম বৃদ্ধি করে এবং ব্রেকডাউন থেকে রক্ষা করে।

রিয়্যকটিভ মেইনটেন্যন্স (Reactive maintenance)

রিয়্যাকটিভ মেইন্ট্যেন্স হচ্ছে ব্রেকডাউন এর পর মেশিন বা যন্ত্রপাতির রিপিয়ারিং এর একটি প্রক্রিয়া যেন মেশিন বা যন্ত্রপাতিকে তার নরমাল অপারেশনে নিয়ে আসা যায়। রিয়্যাকটিভ মেইন্টেন্যন্স করা হয় যখন মেশিন ভেঙ্গে যায়, ফেইল হয় তখন।

কারেকটিভ মেইন্টেন্যন্স (Corrective maintenance)

কারেকটিভ মেইন্টেন্যন্স রিয়্যকটিভ মেইন্টেন্যন্স হিসেবেও পরিচিত। যখন মেশিন রানিং থাকে বা অপারেশন এ থাকতে পারে কিন্তু ভালমত কাজ করে না তখন কারেকটিভ মেইনটেন্যন্স করা হয়। কারেকটিভ মেইন্টেন্যন্স এর ক্ষেত্রে মেশিন বা যন্ত্রপাতি সম্পুর্নরুপে ব্রেকডাউন হতে পারে বা রানিং থাকা অবস্থায় ত্রুটি দেখা দিতে পারে। এটি দুই প্রকার হয়ে থাকেঃ ১। প্ল্যান্ড ২। আনপ্ল্যন্ড

প্রিডিকটিভ মেইন্টেন্যন্স (Predictive maintenance)

মেশিনে ঘটতে পারে এমন সকল ফেইলার যেন না হয় এজন্য প্রিডিকটিভ মেইনটেন্যন্স করা হয়। প্রিডিকটিভ মেইনটেন্যন্স দ্বারা একজন সহজেই বুঝতে পারে যে কখন মেশিন বা ইকুইপমেন্টকে মেইন্টেন্যন্স করতে হবে যেন এতে হঠাৎ এবং অপ্রয়োজনীয় মেইন্টেন্যন্স এর প্রয়োজন না হয়।

ট্রাবলশুটিং(Troubleshooting): 

ট্রাবলশুটিং হচ্ছে সমস্যার কারন খুজে বের করা এবং সংশোধন করা। ট্রাবলশুটিং এর মেইন উদ্দ্যেশ্য হচ্ছে যতদ্রুত সম্ভব ইকুপিমেন্টকে এর অপারেশন কন্ডিশনে ফেরত আনা। 

প্রিভেন্টিভ এবং প্রিডিকটিভ মেইনটেন্যান্স এর পার্থক্য

প্রিডিকটিভ মেইন্টেন্যন্স

প্রিভেন্টিভ মেইনটেন্যন্স

১। মেশিনে ঘটতে পারে এমন সকল ফেইলার যেন না হয় এজন্য প্রিডিকটিভ মেইনটেন্যন্স করা হয়। প্রিডিকটিভ মেইনটেন্যন্স দ্বারা একজন সহজেই বুঝতে পারে যে কখন মেশিন বা ইকুইপমেন্টকে মেইন্টেন্যন্স করতে হবে যেন এতে হঠাৎ এবং অপ্রয়োজনীয় মেইন্টেন্যন্স এর প্রয়োজন না হয়।

১। প্রিভেন্টিভ মেইনটেন্যন্স হচ্ছে রেগুলার এবং রুটিন মেইন্টেন্যন্স যা মেশিনকে হঠাৎ ফেইলারের হাত থেকে বাচায়।  অর্থাৎ এটি একটি শিডিউল মেইন্টেন্যন্স যা ইকুইপমেন্ট বা মেশিনের দক্ষতা বৃদ্ধি করে, যন্ত্রপাতির লাইফটাইম বৃদ্ধি করে এবং ব্রেকডাউন থেকে রক্ষা করে।

২। এটা হচ্ছে সর্বোচ্চ লেভেল এর মেইন্ট্যেন্যান্স যা রিয়্যক্টিভ, প্ল্যন, প্রোএকটিভ মেইন্ট্যান্স এর পর করা হয়।

২। এটা হচ্ছে প্ল্যান মেইন্টেন্যন্স যা প্রিডিকটিভ মেইন্ট্যান্স এর পরে করা হয়।

৩। এটা করা হয় যখন সমস্যার সম্ভাব্য কারন খুজে পাওয়া যায়।

৩। এটা করা হয় যখন সমস্যার সম্ভাব্য কারন খুজে পাওয়া যায় না।

৪। এটা প্রিভেন্টিভ মেইন্ট্যান্স এর তুলনায় অনেক জটিল।

৪। এটা প্রিভেন্টিভ মেইন্ট্যান্স এর তুলনায় অনেক সহজ।

৫। এটার তুলনামুলক খরচ কম।

৬। এর তুলনায়মুলক খরচ বেশি।

৭। এটা সময়স্বাপেক্ষ, মেইন্টেন্যন্যন্স এবং ইন্সপেকশন প্রয়োজনের ভিত্তিতে করা হয়।

৭। এটাও সময়স্বাপেক্ষ, মেইন্টেন্যন্যন্স এবং ইন্সপেকশন রেগুলারলি করা হয়।

What is preventive maintenance types of maintenance schedule maintenance predictive maintenance corrective maintenance Difference between preventive and predictive maintenance 

0/Post a Comment/Comments

Previous Post Next Post